সাবজেক্ট রিভিউ

শিক্ষা ও গবেষণা নিয়ে কেন পড়বেন : সাবজেক্ট রিভিউ

শিক্ষা ও গবেষণা বিষয়টা কেমন

দেশের শিক্ষাব্যবস্থায় ভূমিকা রাখতে চাও শিক্ষা ও গবেষণা? কারিকুলাম ও লার্নিং ম্যাটেরিয়াল তৈরিতে কিংবা মানুষ গড়ার কারিগর শিক্ষকদের ট্রেইনিং এ ভূমিকা রাখতে চাও? করতে চাও শিক্ষাব্যবস্থার উন্নয়নে গবেষণা? তবে শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট তোমার জন্যে।

শিক্ষা ও গবেষণা সাবজেক্ট রিভিউ

পড়াশোনার ধরণ বা কী কী বিষয়ের উপর পড়াশোনা হয়?

শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউটে পড়াশোনার শুরুতেই ভৌতবিজ্ঞান, জীববিজ্ঞান, সামাজিক বিজ্ঞান, ভাষা শিক্ষা ও বিশেষ শিক্ষা, এই পাঁচটি ধারার যে কোন একটি বেছে নিতে হয়। অনার্সের প্রথম দুই বছর পছন্দের ধারার বিশেষায়িত বিষয় যেমন ফিজিক্যালে পদার্থ, গণিত ও রসায়ন; বায়োলজিক্যালের ক্ষেত্রে প্রাণিবিজ্ঞান, উদ্ভিদবিজ্ঞান, রসায়ন এরকম বিষয়ের ইলেক্টিভ কোর্স থাকে।

পাশাপাশি সবার জন্য বাংলা, ইংরেজি ও শিক্ষা বিষয়ের উপর মৌলিক কোর্স থাকে। এছাড়া পুরো একটি সেমিস্টার শিক্ষার্থীদের বাধ্যতামূলকভাবে টিচিং কোর্স করতে হয় যেখানে প্রাথমিক বা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে নিজেদের দক্ষতা যাচাই ও অভিজ্ঞতা লাভের সুযোগ থাকে।

See also  স্বাস্থ্য অর্থনীতি নিয়ে কেন পড়বেন: সাবজেক্ট রিভিউ

 

শিক্ষা ও গবেষণা নিয়ে অনার্স এবং মাস্টার্স কোর্সের সময়কাল

চারবছর মেয়াদী ব্যাচেলর অফ এডুকেশন বা (বি.এড) এবং একবছর মেয়াদী মাস্টার অফ এডুকেশন বা (এম.এড)

 

সেশনজ্যাম কতটুকু?

২০১৫ সেশন এর পর থেকে নেই। ফলাফল প্রদানের ক্ষেত্রে দেরি হলেও প্রত্যেক সেমিস্টার যথাসময়েই শেষ হয়।

 

শিক্ষা ও গবেষণা নিয়ে দেশে চাকরি এবং গবেষণা ক্ষেত্র

বাংলাদেশে শিক্ষা বিষয়ে পড়াশোনার জন্য আইইআরের বিকল্প নেই বললেই চলে তাই শিক্ষা বিষয়ের বিশেষায়িত চাকুরী যেমন কারিকুলাম ডেভেলপার, লার্নিং ম্যাটেরিয়াল স্পেশালিষ্ট, ইউআরসি ইন্সট্রাকটর, পিটিআই ইন্সট্রাক্টর ইত্যাদির উপর একচ্ছত্র প্রভাব আছে আইইআরের শিক্ষার্থীদের।

এছাড়া সরকারি সংস্থাসমূহ যেমন জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমি (NAEM), জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমী (NAPE) ও জাতীয় শিক্ষা ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (NCTB) ইত্যাদিতে, বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাসমূহে, জাতিসংঘে, আন্তর্জাতিক সহযোগিতা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে বিশেষভাবে যারা শিক্ষা নিয়ে কাজ করে সেখানে আইইআরের শিক্ষার্থীদের চাকুরীর সুযোগ আছে।
শিক্ষা ও দক্ষতার উন্নয়নের উপর দেশে ও বিদেশে যেসকল গবেষণা প্রতিষ্ঠান আছে সেখানে গবেষণার সুযোগ রয়েছে।

See also  আমরা কেন পদার্থবিজ্ঞান পড়ব এ সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন

 

শিক্ষা ও গবেষণা নিয়ে উচ্চশিক্ষার উদ্দেশ্যে বিদেশ গমনের হার

উচ্চশিক্ষার জন্য প্রতি ব্যাচ থেকেই কেউ না কেউ দেশের বাইরে যান।

 

পরীক্ষার ফ্রিকুয়েন্সি

সেমিস্টার পদ্ধতিতে পরীক্ষা হয় ৬ মাস অন্তর অন্তর। এছাড়া কোর্সভিত্তিক ২ টি ইনকোর্স পরীক্ষা হয় এই ৬ মাসের মধ্যেই, শিক্ষক শিক্ষার্থীর আলোচনার ভিত্তিতে। ভৌতবিজ্ঞান এবং জীববিজ্ঞান স্ট্রীমের শিক্ষার্থীদের তাদের নির্ধারিত কোর্সগুলোর ল্যাব পরীক্ষা দিতে হয়।

 

সপ্তাহে কয় ঘন্টা ক্লাস? কয় ঘন্টা ল্যাব? ল্যাব ফ্যাসিলিটিজ কেমন?

সপ্তাহে চারদিন ক্লাস থাকে৷ প্রত্যেকটি ক্লাস দেড় ঘণ্টাব্যাপী হয়। প্রতি সপ্তাহে ১৫ ঘন্টা ক্লাস থাকে সাধারণত। ল্যাব সাধারণত শুধু পরীক্ষার আগে কয়েকদিন হয়। ল্যাবের সময় নির্দিষ্ট নয়। ল্যাবে পর্যাপ্ত সুবিধাদি আছে।
কতজন করে শিক্ষার্থী ভর্তি হয় প্রতি বছর?

প্রতি ব্যাচে সাধারণত ১৫০ থেকে ১৬০ জন।

 

পার্টটাইম কাজ করার মতন ফিল্ড আছে কি?

শিক্ষা সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রকল্পে এবং গবেষণা প্রতিষ্ঠানে রিসার্চ এসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করার সুযোগ আছে।

 

ক্লাব এক্টিভিটিজে সময় দিতে গেলে পড়ালেখা কতটুকু করতে পারবো?

See also  কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে কেন পড়বেন:সাবজেক্ট রিভিউ

কোন সমস্যা নেই। অগ্রাধিকারের ওপর নির্ভর করে। সাধারণত কোন অসুবিধা হয় না।

 

এই বিষয়ে পড়ে অনুষদের অন্য কোন বিষয়ে মাস্টার্স করতে পারবো কী?

পারবেন।

 

ইয়ার সিস্টেম নাকি সেমিস্টার সিস্টেম? এটা ভাল নাকি মন্দ?

এক বছরে দুটো সেমিস্টার থাকে৷ ফলে পুরো একবছর ধরে একই কোর্স পড়ার একঘেয়েমি তৈরি হয়না।

 

শিক্ষা ও গবেষণা নিয়ে নবাগতদের উদ্দেশ্যেঃ

শিক্ষা নিয়ে কাজ করা যদি তোমার স্বপ্ন হয়ে থাকে, তাহলে আইইআরই হবে সেই স্বপ্নপূরণের প্ল্যাটফর্ম। ক্যাম্পাসের মধ্যে ছোট্ট আরেকটু ক্যাম্পাসে নবাগতদের জানাই স্বাগতম।

Related Articles

Back to top button