সাবজেক্ট রিভিউ

গণিত নিয়ে কেন পড়বেন:সাবজেক্ট রিভিউ

গণিত বিষয় নিয়ে কেন পড়াশোনা করবেন?

ছোটবেলা থেকেই সবার জন্যই খুব পরিচিত একটি বিষয় গণিত। অনেকের কাছে গণিত বিষয়টা ‘শার্লক হোমস’ নোভেল এর মতো এক্সাইটিং,আবার অনেকের জন্য তা ‘ডার্ক’ সিরিজ থেকেও জটিল।আসলে গনিত হচ্ছে মার্ভেল মুভি।যার ভাল লাগে তার কাছে গণিত নেশার মতো।চোখ বন্ধ করলে ফর্মূলাগুলো বাস্তব রুপে চোখের সামনে ভেসে উঠে, অন্যথায় গণিতকে বাজিমাত করা একটু কষ্টসাধ্যই বটে। তাই অনার্সে গণিত নিয়ে পড়তে হলে অবশ্যই গণিতের প্রতি তোমার ভালবাসা থাকতে হবে।গণিতকে থ্রিলার মুভির মতো এনজয় না করলে ৪ বছর গণিত খুবই কষ্টকর মনে হবে।

৪ বছরে মেজর নন-মেজর মিলিয়ে টোটাল ৩১টি কোর্স রয়েছে যার প্রতিটিই গণিতকে কমপ্লেক্স ভাবা স্টুডেন্ট এর জন্য পাহাড় কেটে সোজা করার মতো। ছোটবেলা থেকে ‘এইম-ইন-লাইফ’ এসে তে সবসময়ই আমরা লিখে এসেছি ডাক্তার কিংবা ইঞ্জিনিয়ার হব কিন্তু কখনও কি আমরা ভেবেছি গণিতবিদ হব?কিংবা ম্যাথ টিচার হব কিংবা লেকচারার?এই জিনিসটাই আমরা ভুল করি।গণিত যেমন ইন্টারেস্টিং তেমনই রিসার্চ এর জন্যও নিঃসন্দেহে খুবই ভাল।

 

গণিত সাবজেক্ট রিভিউ

গণিত নিয়ে কোর্স সাধারণত কত বছরের হয়?

সাধারণত গণিত এর অনার্স কোর্স ৪ বছরের।

গণিত নিয়ে বাংলাদেশের কোন কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ানো হয়?

সনামধন্য অনেক বিশ্ববিদ্যালয়েই রয়েছে এই বিষয়ে অধ্যয়ন এর সুযোগ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় এছাড়া সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে পড়ানো হয়। এছাড়াও অনেক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পিউর সাব্জেক্ট হিসেবে গণিত এর গুরুত্ব অনেক বেশি।

কি কি বিষয়/কোর্স পড়ানো হয়?

মেজর মাইনর এবং প্র্যাক্টিকাল কিছু কোর্সসহ প্রায় ৩১টি কোর্স রয়েছে ৪ বছরের অনার্স কোর্সে।

মেজর কোর্স

১.ফাণ্ডামেন্টাল ম্যাথেমেটিক্স
২.ডিফারেনশিয়াল ক্যালকুলাস
৩.ইণ্টিগ্রাল ক্যালকুলাস
৪.লিনিয়ার এলজেব্রা
৫.নাম্বার থিওরি
৬.এনালিটিক জিওমেট্রি

নন-মেজর কোর্স

১.ওয়েভ এন্ড মেকানিক্স
২.ইলেক্ট্রিসিটি এন্ড ম্যাগনেটিজম
৩.ইন্ট্রোডাকশন টু প্রবাবিলিটি
৪.ইন্ট্রোডাকশন টু স্ট্যাটিস্টিক্স

এই কোর্সগুলো আসলে বিভিন্ন ইউনিভার্সিটি অনুযায়ি পরিবর্তন হয়। কোর কোর্সগুলো সাধারণত হেরফের হয়না।

একজন সদ্য এইচএসসি পাশ করা শিক্ষার্থী কিভাবে বুঝবে তার এ বিষয়ে আগ্রহ আছে কিনা?

স্কুল কলেজের গণিত আর ভার্সিটির গণিত আকাশ পাতাল পার্থক্য। গণিত যদি বুঝে বুঝে পড়তে ভালো লাগে এবং পড়ার ধৈর্যও থাকতে হবে। ম্যাথ শুধু করতে পারো এরকম না, বুঝে বুঝে করতে পারো, কোন ফর্মুলা কেন হচ্ছে তা বুঝতে পারতে হবে তাহলেই তোমার ম্যাথ পড়তে আসা উচিত। আসলে ম্যাথ এর প্রতি খুব ভালবাসা না থাকলে পড়তে না আসাই ভাল।

See also  কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে কেন পড়বেন:সাবজেক্ট রিভিউ

পড়াশোনার ধরন কেমন? তাত্ত্বিক,ব্যবহারিক নাকি উভয়ই?

সম্পূর্ণ তাত্ত্বিক পড়াশোনা। এখানে ব্যবহারিক আসলে কিছুই নেই। তবে প্রোগ্রামিং ব্যবহার করে ম্যাথগুলোর ভিজুয়ালাইজেশন দেখানো হয়। সব থেকে বড় ব্যপার হল তোমাকে চিন্তা করতে শিখতে হবে। কল্পনার রাজ্যে ম্যাথ এর সূত্রগুলোকে বাস্তব রুপ দিতে পারার মতো সাধনা কিংবা চেষ্টা এবং ক্ষমতা থাকতে হবে তা নাহ হলে গিভ আপ করার বাজে চিন্তা মাথায় ঘুরপাক খেতে থাকবে।

এই বিষয়ে পড়াকালীন কি কি এক্সট্রা কারিকুলার অ্যাক্টিভিটির সাথে যুক্ত থাকা যায় যা পরবর্তীতে ক্যারিয়ার গঠনে হেল্প করবে?

নাহ তেমন উল্লেখযোগ্য কিছু নেই যেহেতু ম্যাথ খুবই রিসার্চ রিলেটেড সাব্জেক্ট। তবে ম্যাথ অলিম্পিয়ড এর সাথে যুক্ত থাকা ভালো।নিজেও অলিম্পিয়াড করার সুযোগ পাবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত অবস্থায় কোনো ইন্টার্নশিপের সুযোগ আছে?

তেমন কিছু নেই যা গণিত এর শিক্ষার্থীদের জন্য বাড়তি সুযোগ সৃষ্টি করবে। অনার্স এর ৪ বছর ম্যাথ নিয়ে রিসার্চ করে নিজেকে রিসার্চ কিংবা টিচিং জব এর জন্য প্রস্তুত করার চেষ্টা করা ভাল।গণিত বিভাগে সপ্তাহে যেহেতু একটিমাত্র ল্যাব,তাই অন্যান্য বিভাগের তুলনায় একটু বেশি ফ্রি টাইম পাওয়া যায় যা ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্ট এ কাজে লাগাতে পারবে। তাছাড়াও পড়াশুনা করা অবস্থায় টিউশনি করে নিজের হাতখরচ অনায়াসে জোগাড় হয়ে যায়।

গণিত নিয়ে পড়াশোনা শেষ করে সরকারি চাকরির ক্ষেত্রগুলো কি কি?

বাংলাদেশে সাব্জেক্ট অনুযায়ী চাকরির সুযোগ খুবই ক্ষীণ। ম্যাথ এ অনার্স করা যেকোনো শিক্ষার্থী বিসিএস এক্সাম দিয়ে সরকারি যে কোনো সেক্টরে চাকরি করতে পারে তবে এতে ম্যাথ পড়ার জন্য আলাদা কোনো সুবিধা পাওয়া যাবে না। তবে আমাদের দেশে ম্যাথ এর স্টুডেন্টরা ব্যাংকের ভাল পদে চাকরি করেন।

সব থেকে বড় যে সুবিধা সেটি হলো ম্যাথ কোর্স সব বিশ্ববিদ্যালয়েই আছে সুতরাং ম্যাথের টিচার ও দরকার হয় সকল ভার্সিটিতেই যা আসলেই একটা ভাল সুযোগ ম্যাথের স্টুডেন্টদের জন্য। এছাড়া বিভিন্ন স্কুল কলেজ তো আছেই।

গণিত নিয়ে পড়াশোনা শেষ করে প্রাইভেট চাকরির ক্ষেত্র কিরকম?

প্রাইভেট চাকরির ক্ষেত্রে প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে লেকচারার হিসেবে জয়েন করা সবচেয়ে সুবিধাজনক। এছাড়া বিভিন্ন প্রাইভেট ব্যাংকগুলোতেও চাকরির সুযোগ আছে।

গণিত নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে লেকচারার হওয়ার সুযোগ কেমন?

ম্যাথ এর স্টুডেন্ট এর সবচেয়ে বেশি সুযোগ বিশ্ববিদ্যালয়ে লেকচারার হওয়ার। এক্ষেত্রে চাইলে যেকনো ইঞ্জিনিয়ারিং ইউনিভার্সিটির লেকচারার হওয়া যায় যদি স্টুডেন্ট এর যোগ্যতা থাকে। তবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো মুলত তাদের স্টুডেন্ট থেকেই বাছাই করে লেকচারার হিসেবে নিয়গ দিয়ে থাকে,এক্ষেত্রে সিজিপিএ খুব বড় ফ্যাক্টর।

See also  টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে কেন পড়বেন: সাবজেক্ট রিভিউ

তবে ভাল দিক হচ্ছে ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ম্যাথকে আলাদা সাব্জেক্ট হিসেবে পড়ানো হয়না তাই এসব ভার্সিটিতে ম্যাথ লেকচারার অন্য ভার্সিটি থেকে নেওয়া হয়। এক্ষেত্রে সিজিপিএ হতে হয় নূন্যতম ৩.৫।

গণিত নিয়ে চাকুরী ক্ষেত্রে স্যালারি রেঞ্জ কেমন?

স্যালারি আসলে স্পেসিফিকভাবে কিছু বলা যায়না তবে স্যালারি রেঞ্জ সময় এবং স্কিল এর সাথে সাথে ভালই পায়।বিদেশে উচ্চশিক্ষা অর্জন করেও স্যালারির পরিধি বাড়াতে পার।

গণিত নিয়ে রিসার্চের কেমন সুযোগ রয়েছে?

বাংলাদেশে রিসার্চের তেমন কোনো সুযোগ নেই বললেই চলে তবে বিদেশে গণিতবিদদের ভাল স্যালারিতে রিসার্চ এর জন্য রিক্রুট করা হয়।

 

গণিত নিয়ে বিদেশে উচ্চশিক্ষার সুযোগ কেমন?

ইউএসএ,ইউকে,কানাডা,জার্মানি এসব দেশে সব থেকে বেশি যায় শিক্ষার্থীরা। আসলে ম্যাথ এ ভাল হলে যে কোনো দেশেই যাওয়া সম্ভব। মাস্টার্স এবং পিএইচডি এর জন্য স্কলারশিপ পাওয়া সম্ভব। মাস্টার্স এর তুলনায় পিএইচডি তে স্কলারশিপ এর সুযোগ অনেক বেশি।এক্ষেত্রে সিজিপিএ ৩.৫+থাকা ভাল তবে ৩ এর নিচে হলেও খুব বেশি সমস্যা হয়না।

বিদেশে পিএইচডি এর জন্য GRE/GMAT নামক একটা দক্ষতার পরীক্ষা দিতে হয়।আর এই পরীক্ষার ৫০%ই ম্যাথ রিলেটেড। গণিত বিভাগে পড়লে GRE এর Quantitative এবং Integrated reasoning part তুমি খুব দ্রুত নির্ভূলভাবে সমাধান করার দক্ষতা অর্জন করতে পারবে, এমনকি তোমার অন্য বন্ধুদের প্রিপারেশন নেওয়ার ক্ষেত্রেও হেল্প করতে পারবে।

গনিতে অনার্স কমপ্লিট করার পর মাস্টার্স এর জন্য অনেক বিষয়কে বেছে নিতে পার।

যেমন:

Financial Mathematics /Financial Engineering

বর্তমান সময়ে Mathematician দের জন্য অন্যতম emerging একটা ক্ষেত্র। এই sector এ lead দেয়ার জন্য তোমার গাণিতিক দক্ষতা খুব সহায়তা করবে। তোমরা যারা 6 digit salary এর জবে যেতে চাও, তারা mathematics এ অনার্স শেষ করে এই field এ আসতে পার।

 

Actuary

গণিতবিদদের জন্য এটাও খুব ভাল ক্ষেত্র।Mathematics graduate দের বিভিন্ন বীমা কোম্পানিতে actuarial scientist হিসেবে কাজের সুযোগ রয়েছে।

 

Data Science /Business Analytics 

বিভিন্ন foreign University তে এটা masters এ পড়ানো হয় এবং এখানে mathematics graduate দের অনেক চাহিদা। USA এর top 10 highest paid job এ Data Science একটা। অনার্সে পড়া বিভিন্ন ম্যাথ কোর্স এবং ল্যাবে যে programming skill তুমি আয়ত্ত্ব করেছ সেটা তোমাকে এখানে খুব help করবে।

See also  বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি নিয়ে কেন পড়বেন?

 

Operation Research 

বড়সড় কোনো একটা বহুজাতিক কোম্পানি কিভাবে পণ্য উৎপাদন করলে, কিংবা কোন পণ্য বাজারে ছাড়লে সর্বোচ্চ লাভবান হবে এবং উৎপাদন খরচ কিভাবে সর্বনিম্ন রাখবে সেটা নিয়ে গাণিতিক বিশ্লেষণ করা হয় Operation Research এ। Mathematics Undergraduate এ তোমাকে Linear Programming, Non Linear Programming এসব শিখানো হবে। Undergraduate শেষ করে তুমি খুব সহজেই Operation Research এ আসতে পার এবং বহুজাতিক কোম্পানিগুলো তাদের উৎপাদন -খরচ-লাভ-ক্ষতি সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানের জন্য তোমার কাছে আসবে। Multinational Firm তোমার কাছে আসবে, তাই স্যালারির কথা নাইবা বললাম।

 

Computational Mathematics 

এটি মূলত Mathematics এবং Programming এর একটা সমন্বয়। Research এর জন্য খুব ভাল।

 

Computer Science 

আগেই বলেছি, Mathematics Dept এ programming lab করতে হয় প্রতিবছর। যাদের CSE/IT তে পড়ার ইচ্ছে ছিল, কিন্তু এখন সেখানে ভর্তি হতে পারছ না, তারা Mathematics এ স্নাতক করতে পার। গণিতে অনার্স করার পর তুমি বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে Computer Science এবং এই related topic এ MS/Research করতে পারবে।

 

Pure Mathematics 

গণিত বিভাগে পড়ার সময় তোমাদের কারো হয়ত Pure Mathematics এর বিভিন্ন টপিক ভাল লেগে যেতে পারে। Fuzzy mathematics, Group Theory, Ring Theory, Lie Algebra এর মত বিশুদ্ধ গণিতের অনেক শাখায় তোমরা মজে যেতে পার। Top ranked University গুলো এসবে Research এর জন্য অনেক scholarship দেয়।

এছাড়াও Theoretical Physics, Astronomy, Quantum Mechanics, Computation Mechanics এসব field এও mathematics undergraduate রা Masters করতে পারে।

জেনে খুশি হবে, শুধু এই বছরই গণিত বিভাগ থেকে 23 জন শিক্ষার্থী USA এর বিভিন্ন University তে masters/ PhD এর জন্য গেছে। জুনিয়রদের কে একটা কথাই বলতে চাই সেটা হল কারো কথা শুনে কিংবা ভাল বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার জন্য গণিত বিষয়ে পড়তে আসা বোকামি। গণিতের প্রতি থাকতে হবে অদম্য ভালবাসা।যারা গণিত এঞ্জয় করে তাদের জন্য গণিত বিষয়ে পড়লে জীবন অচল হবে নাহ কোনোদিনই, সেটি দেশে হোক বা বিদেশে।

এখানে আসলে মুখস্ত করে তুমি পাস করেও বের হতে পারবে না।সুতরাং ম্যাথ পড়তে হলে ভালবাসতে হবে গণিতকে,গণিতের জটিলতাকে। তবেই এক্সাইটমেন্ট কাজ করবে অনার্সের দীর্ঘ ৪বছর এবং একজন তুমি হতে পারবে একজন সুপরিচিত গণিতবিদ।

Related Articles

Back to top button