পদার্থ

বিএসএল লেভেল ৪ ল্যাব কাকে বলে ও এর ব্যবহার

বিএসএল (BSL) এর মানে হলো biosafety level ল্যাব। বিএসএল লেভেল ৪ ল্যাব মানে হচ্ছে Biosafety Level Lab-4 বা BSL Level-4.

বায়োসেফটি লেভেল ল্যাব হলো জীবাণু / সুরক্ষা মাত্রা সম্বলিত নিয়ন্ত্রিত পরীক্ষাগার, যা বিপদজনক জৈব পদার্থ ছড়াতে পারে না ,এমন সুরক্ষিত ব্যবস্থ্যা প্রদান করে । নিয়ন্ত্রণ অনুযায়ী সর্বনিম্ন লেভেল ১ থেকে সর্বোচ্চ বিএসএল লেভেল ৪ ল্যাব পর্যন্ত ল্যাব আছে ।

 

 

এই ল্যাবগুলোতে বায়োসেফটি কেবিনেট, বায়ু চলাচল মুক্ত কক্ষ থাকে। পিপিইউ ও সুনির্দিষ্ট ব্যক্তি ব্যতীত অন্যদের প্রবেশ নিষিদ্ধ । এর দরজা পাসওয়ার্ড ও ফিংগার প্রিন্ট নিয়ন্ত্রিত । বায়োসেফটি ল্যাব যেসব জীবাণু বা টক্সিন নিয়ে কাজ করে সেগুলোকে biohazard বলে । সেগুলোকে পরিবেশের ক্ষতির দিক দিয়ে বিভিন্ন লেভেলে ভাগ করা হয়েছে ।

বিএসএল-৪ হলো সর্বোচ্চ বিপদজ্জনক ভাইরাস, এগুলো নিয়ে নিরাপদে কাজ করা যায় এমন কোন ল্যাব। এই ল্যাবগুলো বিতর্কিত ও বটে ।

See also  তুল্য রোধ কাকে বলে ও তুল্য রোধ নির্ণয়ের সূত্র

 

বিএসএল লেভেল ৪ ল্যাব এর বৈশিষ্ট্য

  1. বায়ু চলাচল মুক্ত কক্ষ
  2. বিশেষ ক্যাবিনেট
  3. গবেষকদের স্পেস স্যুট ব্যবহার
  4. ব্যাকটেরিয়া বা ভাইরাসের বায়ুরোধক বাক্স
  5. উচ্চ প্রতিরোধ ক্ষমতাসম্পন্ন গ্লাভস
  6. কাজ শেষে কক্ষের বায়ু ও বর্জ্য বিশেষ ফিল্টারিং
  7. সুনির্দিষ্ট ব্যক্তি ব্যতীত অন্যদের প্রবেশ নিষিদ্ধ ।

 

Biosafety কেবিনেট

Biosafety কেবিনেট

 

Biosafety স্যুট ।

Biosafety স্যুট ।

 

BSL 4 বিএসএল লেভেল ৪ ল্যাব ল্যাব বিশ্বে ৫৪টির মতো আছে।

জাপান ১৯৮১ সালে BSL 4 বিএসএল লেভেল ৪ ল্যাব তৈরির পরও সঠিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করে সেটা উদ্ভোধন করতে ২০১৫ সাল পর্যন্ত লেগেছে । চীনের উহান শহরে যে ল্যাব থেকে নভেল করোনা ভাইরাস ছড়িয়েছে বলে অনেকে সন্দেহ করছেন , সেটি আগে BSL 3 লেভেলের ছিলো । সেটিকে 2018 সালে BSL 4 এ উন্নীত করে sars ও pandemic influenza নিয়ে গবেষণা করা হয়। ভবিষ্যতে যদি কখনো প্রমাণিত হয়, বর্তমান নভেল করোনা ভাইরাসটি উহানের ল্যাব থেকে ছড়িয়েছে তবে বিশ্বসম্প্রদায় এ ধরনের ল্যাব নিষিদ্ধ করতে বলবে ।

এই ল্যাবগুলো যে সমস্ত জীবাণু নিয়ে কাজ করে সেগুলো লেভেল অনুযায়ী দেয়া হলো ।

See also  আইনস্টাইন কেন বলেছিলেন ঈশ্বর পাশা খেলে না?

 

Biohazard level 1 – যে সমস্ত জীবাণু মানব শরীরে ক্ষতি করে না ।

যেমন:

  • bacillus subtilis.

 

Biohazard level 2 – যে সমস্ত জীবাণুর সংস্পর্শ সুস্থ্যদেহে বিপদজনক ক্ষতি হতে পারে ।

যেমন

  • HIV, salmonella, hepatitis B.

 

Biohazard level 3 – যে সমস্ত জীবাণু বাতাসের মাধ্যমে ছড়াতে পারে ও ব্যাপক ক্ষতি করতে পারে ।

যেমন,

  • tuberculosis.

 

Biohazard level 4 – ভয়ানক ক্ষতিকর জীবাণু যেসব রোগের চিকিৎসা নেই বিএসএল লেভেল ৪ ল্যাব ।

যেমন

  • Ebola virus, Marburg virus, and Hantavirus.

 

বায়োসেফটি লেভেল ল্যাবগুলো উক্ত লেভেলের biohazard নিয়ে কাজ করে । যেমন biohazard level 4 নিয়ে biosafety level lab 4 গুলোর কাজ ।

Related Articles

Back to top button